1. editor@mvoice24.com : Mahram Hossain : Mahram Hossain
  2. admin@mvoice24.com : admin :
রাজধানীতে মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে যুবকের ৭ টুকরো লাশ উদ্ধার - MVOICE 24
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:২৮ অপরাহ্ন

রাজধানীতে মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে যুবকের ৭ টুকরো লাশ উদ্ধার

ডেক্স নিউজ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৫ মে, ২০২১
  • ২৫১ বার পড়া হয়েছে

এমভয়েস ডেস্ক,ঢাকা: রাজধানীতে মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে এক যুবকের ৭ টুকরো লাশ উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

মঙ্গলবার (২৫ মে) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে
যুবকের হত্যাকারী মসজিদের ইমামের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকার দক্ষিণখানে অবস্থিত সরদার বাড়ি জামে মসজিদ থেকে লাশ উদ্ধার করে (‌‌র‌্যাব)।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সাংবাদিকদের জানান, গত ২৪ মে রাত আনুমানিক নয়টার সময় র‌্যাবের গোয়েন্দা দল গোপন সূত্রে জানতে পারে, সরদার বাড়ি জামে মসজিদের সিঁড়িতে রক্তের দাগ আর সেপটিক ট্যাংক হতে তীব্র দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। এরপর র‌্যাবের গোয়েন্দা দল ছায়া তদন্ত শুরু করে।

এসময় স্থানীয়রা জানায়, আজহার (৩০) নামে এক যুবক ১৯ মে থেকে নিখোঁজ রয়েছে।
র‌্যাবের তদন্তকারী দল আজহারকে খুঁজে বের করতে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। র‌্যাবের গোয়েন্দা তৎপরতায় ও গোপন সূত্রের ভিত্তিতে হত্যাকারী সন্দেহে মৃত লুৎফর রহমান শেখের পুত্র ঐ মসজিদের ইমাম মাও. মোঃ আব্দুর রহমান শেখকে দক্ষিণখানের মাদ্রাসাতুর রহমান আল আরাবিয়া হতে আটক করা হয়।

র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাও. রহমান হত্যাকান্ডের বর্ণনা দিয়ে আজহারের টুকরো লাশ মসজিদের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখার তথ্য দেন। এসময় তার কাছ থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ৩টি চাকু ও ১টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

মাও. রহমানের উদ্ধৃতি দিয়ে র‌্যাব অধিনায়ক আরো জানান, দক্ষিণখানের সরদার বাড়ি জামে মসজিদে দীর্ঘ ৩৩ বছরের ইমামতি জীবন তার। আজহারের ছেলে মোঃ আরিয়ান (৪) উক্ত মসজিদের মক্তবে মাও. রহমানের কাছে পড়াশোনা করতো।
আজহার নিজেও ইমামের কাছে কুরআন পড়তো। ফলে ভিকটিমের বাসায় প্রায়ই ইমাম সাহেব যাওয়া আসা করতো।
গত ১৯ মে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মাও. রহমান ক্ষিপ্ত হয়ে আজহারের গলার ডানপাশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন।
এতে ঘটনাস্থলে সে মারা যায়। হত্যাকান্ডের ঘটনা ধামাচাপা দিতে লাশ টুকরো টুকরো করে সরদার বাড়ি জামে মসজিদের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখেন মাও. রহমান।

এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত তথ্য উদঘাটনের জন্য অধিকতর তদন্ত চলছে বলে র‌্যাব অধিনায়ক নিশ্চিত করেন।

টিএএস/এএএম/এমএমএইচ/৮

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরো ......
Design Customized By Our Team