1. editor@mvoice24.com : Mahram Hossain : Mahram Hossain
  2. admin@mvoice24.com : admin :
চট্টগ্রামে ক্যান্সার হাসপাতাল: স্বপ্ন দাঁড়াবে প্রত্যাশার পিলারে - MVOICE 24
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:০১ অপরাহ্ন

চট্টগ্রামে ক্যান্সার হাসপাতাল: স্বপ্ন দাঁড়াবে প্রত্যাশার পিলারে

ডেক্স নিউজ
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৫২ বার পড়া হয়েছে

মুহাম্মদ মহরম হোসাইন

চট্টগ্রামে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে ক্যান্সার চিকিৎসা সংকট বহু আগের। রোগীর তুলনায় চিকিৎসক ও চিকিৎসার অপ্রতুলতা নিয়ে কথা হয়ে আসছিল দীর্ঘদিন থেকে। কিন্তু সংকট সমাধানেরে উদ্যোগ খুব একটা চোখে পড়েনি। এমতাবস্থায় এগিয়ে এসছেন একদল উদ্যোগী মানুষ। প্রায় পাঁচ বছর আগে মা ও শিশু হাসপাতাল কেন্দ্রিক কিছু মানুষ কেবল দৃঢ় মনোবল ও সৎ সাহস নিয়ে চট্টগ্রামে একটি ভালো মানের ক্যান্সার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসেন। জায়গা ছিলনা, অর্থ ছিলনা তবুও মানুষের প্রতি ভালবাসা ও স্বপ্নকে সঙ্গি করেই তারা হাত বাড়ালো অসীম শূণ্যে। এখন ক্যান্সার হাসপাতাল আর কোন স্বপ্ন নয়, অসম্ভবও নয়। ধীরে ধীরে তারা এগিয়েছে অনেক দূর। মা ও শিশু হাসপাতাল আঙিনায় কাঙ্খিত এই হাসপাতাল নির্মাণের সব আয়োজন চলছে। ‘ক্যান্সারেরও এ্যান্সার আছে’ এমন স্লোগানকে ধারণ করেই এগিয়ে চলা মানুষগুলোর স্বপ্ন এখন দাড়াবে প্রত্যশার পিলারে।

ইতিমধ্যে ক্যান্সার হাসপাতাল স্থাপনের জন্য সরকার থেকে পাওয়া গেছে ১৫ কাঠা জমি। এই জমির উপর হবে ৫৫ হাজার স্কয়ার ফিট এর দশতলা ভবন। হাসপাতালটি স্থাপনের ব্যয় ধরা হয়েছে ১২০ কোটি টাকা। এটি নির্মাণের জন্য স্হাপত্য ডিজাইনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। হাসপাতালটির নাম দেয়া হয়েছে ক্যান্সার হাসপাতাল ও রিসার্চ ইনস্টিটিউট। হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ শুরু হয় ২০১৫ সাল থেকে। প্রাথমিক ভাবে ১০ শয্যার চিকিৎস সেবা কার্যক্রম চলছে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে। হাসপাতালের জন্য আধুনিক  রেডিয়েশন মেশিন ক্রয়ের জন্য ট্রেড ভিশন লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদন করা হয়েছে।
হাসপাতাল নিমানে জন্য নিধারিত ব্যায়ের ২০ কোটি টাকা ইতিমধ্যে ফান্ডে জমা হয়েছে। উদ্যেগত্তরা বিশ্বাস করেন বাকী টাকা্ও দানশীল সেবাপ্রবন মানুষদের সহায়তায় গড়ে উঠবে।
হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষ্যে আজ মঙ্গলবার আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল পরিচালনা পরিষদের পর্ষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এস এম মোরশেদ হোসেন হাসপাতাল সম্পকে বিভিন্ন তথ্য সাংবাদিকদের অবহিত করেন।

ক্যান্সার হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক ও দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক বলেন, বর্তমানে ক্যান্সার রোগী বৃদ্ধির হারের বাস্তবতায় চট্টগ্রাম একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ক্যান্সার হাসপাতাল অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। কিন্তু একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার প্রধান নিয়ামক হলো অর্থ। আমরা মনে করি চট্টগ্রাম নগরের প্রায়ই ৭০ লাখ মানুষের বসবাস প্রতিটি মানুষ যদি ১০০ টাকা করে ক্যান্সার হাসপাতালের জন্য দান করেন তাহলে একমুহূর্তেই এ হাসপাতালে জন্য ৭০ কোটি টাকার একটি তহবিল হয়ে যাবে এ প্রত্যাশা নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।
আমরা মনে করি নাগরিক উদ্যোগে হবে এই ক্যান্সার হাসপাতাল ও রিসার্চ ইনস্টিটিউটি। ৪ ফ্রেবুয়ারি বিশ্ব ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে হাসপাতালটির ভিত্তিপ্রস্তর স্হাপন করবেন ভুমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মা শিশু হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক আঞ্জুমান আরা, ক্যান্সার হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব মো: রেজাউল করিম আজাদ, যুগ্ন আহবায়ক শিল্পপতি আবু তৈয়ব,মা ও শিশু হাসপাতাল এর যুগ্ন আহবায়ক রুহুল আমিন, পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফ, সদস্য ইঞ্জিনিয়ার জাবেদ আবসার চৌধুরী, এডভোকেট আহসানুল্লাহ, ডাক্তার পারভেজ ইকবাল শরীফ, রেখা আলম চৌধুরী, সাংবাদিক আবু সুফিয়ান, পরিচালক প্রশাসন ডঃ মোঃ নুরুল হক প্রমূখ।

প্রসঙ্গত: ১৯৭৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক শিশু বর্ষ দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রামের কিছু মানুষ মা ও শিশু হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাথমিকভাবে শুধুমাত্র শিশু স্বাস্থ্য বহি:বিভাগের মাধ্যমে এর যাত্রা শুরু হলেও বর্তমানে প্রতিষ্ঠান অধীনে ৬৫০ শয্যা বিশিষ্ট একটি পূর্ণাঙ্গ জেনারেল হাসপাতাল, একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ, নার্সিং ইনস্টিটিউট, একটি নার্সিং কলেজ, একটি ইনস্টিটিউট অব অটিজম এন্ড চাইল্ড ডেভলপমেন্ট অত্যন্ত সফল ও সুন্দর ভাবে পরিচালিত হচ্ছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরো ......
Design Customized By Our Team