1. editor@mvoice24.com : Mahram Hossain : Mahram Hossain
  2. admin@mvoice24.com : admin :
শিক্ষার্থীর সততা: নৌ-কর্মকর্তা ফিরে পেলেন মানিব্যাগ - MVOICE 24
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

শিক্ষার্থীর সততা: নৌ-কর্মকর্তা ফিরে পেলেন মানিব্যাগ

পীরজাদা মু. মহরম হোসাইন
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০২২
  • ২৫০ বার পড়া হয়েছে

এমভয়েস ডেস্ক, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২: বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নৌ ভান্ডার চট্টগ্রামের কমান্ডার অদ্বৈতানন্দ দাশ গত ১৮ জুলাই নগরির জিইসি মোড়ে ব্যক্তিগত কাজে এসে তাঁর মানিব্যাগটি হারিয়ে ফেলেন। মানিব্যাগে ছিলো তাঁর ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, বোট ক্লাব মেম্বারশিপ কার্ড সহ বেশ কিছু মূল্যবান ডকুমেন্টস। তিনি আশেপাশে অনেক খুঁজাখুঁজি করেও মানিব্যাগটি পাননি। অবশেষে চকবাজার থানায় মানিব্যাগ হারানো বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়রী করেন।

ইতিমধ্যে অদ্বৈতানন্দ দাশের মোবাইল ফোনে একটি ফোনকল আসে। ফোনের অপর প্রান্ত থেকে নুসরাত জাহান সিমনা (১৫) নামের একজন মেয়ে বলে যে, জিইসি মোড় থেকে তার মা সনি বেগম একটি মানিব্যাগ পেয়েছেন, তিনি এটি হস্তান্তর করতে চান। কিন্তু অপরপ্রান্তে থাকা নৌ কমান্ডার তাঁর পরিচয় দিলে ঘটে বিপত্তি। নৌ কমান্ডারের পরিচয় পাওয়ার পর আইনি জটিলতার সম্মুখীন হতে হবে কিনা ভয়ে নুসরাত জাহান সিমনা ও তার পরিবার কিছুটা শঙ্কিত হয়ে পড়ে। এরপর তাঁরা যে নাম্বার থেকে ফোন করেছিল সেটি বন্ধ করে রাখে।

নৌকমান্ডার অদ্বৈতানন্দ দাশ পড়ে গেলেন চিন্তায়। সামান্য যেটুকু আশার আলো পেলেন তা আবার মূর্হুতে নিভে গেল। কিন্তু মানিব্যাগে থাকা প্রতিটি ডকুমেন্ট তাহার নিকট গুরুত্বপূর্ণ। তাই যে কোন মূল্য সেটি ফেরত পেতে হবে। তিনি বিষয়টি চকবাজার থানায় এসে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস জাহানকে সামগ্রিক বিষয় বলেন। ওসি তাৎক্ষণিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে উক্ত পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন এবং তাদেরকে আইনি কোন ধরনের জটিলতা নেই মর্মে আশ্বস্ত করলে ওসির কথায় পরিবারটি নির্ভরতা পায়। এবং জিইসি মোড়ে একটি ফুড কর্ণারে মেয়েটি তাঁর মা সহ আসছেন বলে জানান। সেখানে গিয়ে ওসি ও নৌ কমান্ডার অদ্বৈতানন্দ দাশ জানতে পারেন নুসরাত জাহানের মা জিইসি মোড় থেকে মানিব্যাগটি কুড়িঁয়ে পেয়েছেন। কিন্তুু তার মা সনি বেগম স্বল্প শিক্ষিত হওয়ায় মানিব্যাগে রক্ষিত ডকুমেন্টস গুলোর পাঠ উদ্ধার করতে পারেন নি। তিনি মানিব্যাগটি বাসায় নিয়ে গিয়ে দশম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ে নুসরাতকে দেখালে মেয়েটি তাঁর বাবা-মাকে বুঝান মানিব্যাগে রক্ষিত ডকুমেন্টস গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পরে নৌকমান্ডার অদ্বৈতানন্দ দাশকে ফোন দেন। ভয়ে তাঁরা মোবাইল বন্ধ করে রাখেন। অবশেষে নৌকমান্ডার অদ্বৈতানন্দ দাশ পুলিশের সহায়তায় ও একটি পরিবারের সততা ও মানবিকতায় গত ২১ জুলাই তাঁর গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস সহ মানিব্যাগটি ফিরে পান।
তিনি এই পরিবারের সততা ও মানবিকতায় মুগ্ধ হয়ে দশম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়েটিকে একটি ডায়রী ও কিছু আর্থিক পুরস্কার দেন। সৈই সাথে পুলিশের আন্তরিক সহযোগিতার জন্যে ধন্যবাদ ও নৌবাহিনীর মনোগ্রাম যুক্ত একটি ক্যাপ উপহার দেন।

টিএএস/এএএম/৯

 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরো ......
Design Customized By Our Team